Header Ads

  • রক্তের বন্ধু ঘাম

    হার্ট এ্যাটাক, এ্যাথেরোসক্লেরোসিস, অতিস্থুল, উচ্চরক্তচাপ এবং অস্থি স্বছিদ্রতা নিরাময়ের একটি সহজ উপায় হল শরীর থেকে ঘাম নিঃসরণ।
    কি ভাবে ঘাম ঝরাবেন?
    প্রত্যেক মানুষ এটি করতে পারেন সহজেই।
    এর জন্য অর্থ ব্যয়ের প্রয়োজন হয় না।
    অামি ব্যায়ামের কথা বলছি।
    ব্যায়ামের ফলে কি ঘটে!
    ব্যায়ামের ফলে রক্তবাহী ধমনী, শিরা ও মাংশপেশী মালিশ হয়ে যায়। ফলে রক্ত সংচালনক্রিয়ার উন্নতি ঘটে।
    ব্যায়ামের ফলে শ্বাস প্রশ্বাস ক্রিয়া ঘন ঘন চলতে থাকে ফলে রক্তের লোহিত কণিকা অনেক বেশি অক্সিজেন পায় এবং দেহের কোটি কোটি কোষে অক্সিজেন সরবরাহ করতে পারে।
    নিয়মিত ব্যায়াম বা পরিমিত পরিশ্রম করলে অল্পদিনের মধ্যে হৃদস্পন্দন স্বাভাবিক করে দেবে। ফলে হৃদয়ের বাড়তি কাজের চাপ কমে যাবে।
    শরীর থেকে ঘাম ঝরানো শুরু করুন।
    দেখবেন অন্যরকম প্রশান্তি দেহ- মনে ছড়িয়ে যাবে।
    হৃদযন্ত্র অাপনার সারা শরীরে রক্ত পাম্প করে ধমনীর মাধ্যমে। হৃদয়কে চালু রাখার জন্য তার নিজস্ব রক্তপ্রবাহের ব্যবস্থা রয়েছে। পরিমিত পরিশ্রম বা ব্যায়ামের ফলে হৃদয়ের রক্তসরবরাহ ব্যবস্থার উন্নতি ঘটে। হৃদ পেশিতে রক্ত সরবরাহের জন্য যে ক্যাপিলারির দরকার তা তা বৃদ্ধি পায়। ফলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুকি কমে যায়।করোনারী ধমনীর অাকার ওধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
    নিয়মিত ঘাম ঝরান,
    ভাল থাকুন।

    No comments

    Post Bottom Ad